লাকসামে এক কুলাঙ্গার ছেলের বিরুদ্ধে মায়ের মামলা
স্টাফ রিপোর্টার: তিন মাস বয়সে স্বামীর মৃত্যুর পর অন্যের বাড়ীতে ঝি এর কাজ করে অনাথ ছেলে সিরাজকে মানুষ করেছেন ছায়ের খাতুন (৭০)। অনেক কাঠ খড় পুড়িয়ে ভাইয়ের সহযোগিতায় ছেলে সিরাজ মিয়াকে কর্মসংস্থানে বিদেশ পাঠান। বলতে গেলে দারুন সুখের স্বপ্নের হাতছানি দিয়েছিলো তার কপালে। কিন্তু পুত্রকে বিয়ে করানোর পর তার সুখের স্বপ্ন অনলে পুড়ে যায়। রাতারাতি অতীত ভূলে যায় সিরাজ। এমনকি জন্মদাত্রী মাকেও চিনতে তার কষ্ট হয়। বিদেশ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা ও সম্পদ কামাই করে গচ্ছিত রাখেন শ্বশুর বাড়ী পাশ্ববর্তী গ্রাম ডাকড্যায়। মায়ের খোঁজ-খবর, ভরণ- পোষন পুরোপুরি উপেক্ষা করে। সহযোগিতার পরিবর্তে সিরাজ ও তার স্ত্রী রাবেয়া আক্তার হুমকি নির্যাতন চালিয়ে ভিটে ছাড়া করে ছায়েরা খাতুনকে। মাথায় গোজার সম্বল ভিটেমাটি রেজিষ্ট্রি করে নেয়। একপর্যায়ে বাধ্য হয়ে সিংজোড় গ্রামের গন্যমান্য ব্যক্তি আত্মীয় স্বজন ও কান্দির পাড় ইউনিয়নে চেয়ারম্যানকে বিষয়টি অবহিত করে সুবিচার চান। কিন্তু চেয়ারম্যানের দরবারে হাজির হয়নি সিরাজ। নিরুপায় হয়ে গত ১৩ ডিসেম্বর কুমিল্লার লাকসাম থানায় ছেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *